‘আমার ছেলেকে তিন বছর লিবিয়ায় অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে’
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০৭

‘আমার ছেলেকে তিন বছর লিবিয়ায় অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে’

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০২/০৪/২০২৪ ১১:৫০:১১

‘আমার ছেলেকে তিন বছর লিবিয়ায় অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে’

ছবি : নিজস্ব


সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় মানব পাচার মামলায় জেবু মিয়া (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (১ মার্চ) গ্রেপ্তার জেবু মিয়াকে সুনামগঞ্জ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তিনি জগন্নাথপুর পৌরসভার কেশবপুর এলাকার মৃত আপ্তাব আলীর ছেলে।

ইতালি পাঠানোর নামে লিবিয়ায় নিয়ে নির্যাতনের ঘটনায় সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মানব পাচার মামলায় জেবু মিয়া (৪০) নামের এক মানব পাচার চক্রের সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০২১ সালের ১০ অক্টোবর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের ইছগাঁও গ্রামের মানব পাচার চক্রের মূল হোতা আজিজুর রহমানের মাধ্যমে সাড়ে ১০ লাখ টাকা চুক্তিতে হবিবপুর গ্রামের ছালিক মিয়ার ছেলে মিজান মিয়া ইতালি যাওয়ার জন্য দুবাই হয়ে লিবিয়ায় যান। চুক্তি অনুযায়ী কথা ছিল ইতালি পৌঁছানোর পর টাকা পরিশোধ করার। কিন্তু লিবিয়ায় যাওয়ার পর মিজানকে হত্যার ভয় দেখিয়ে তাঁর মায়ের কাছ থেকে চুক্তি করা সাড়ে ১০ লাখ টাকা আদায় করে মানব পাচার চক্রের সদস্যরা। কিছুদিন পর আবার মিজানকে অমানবিক নির্যাতন করে তাঁর মায়ের কাছ থেকে আরও ১০ লাখ টাকা আদায় করে ওই চক্র। দীর্ঘ তিন বছর নির্যাতনের পর গত ১৭ জানুয়ারি লিবিয়া পুলিশের সহযোগিতায় মিজানকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় গত সোমবার মিজানের মা রেখা বেগম বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় আজিজুর রহমানকে প্রধান আসামি করে ছয়জনের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদী রেখা বেগম বলেন, ‘আমার ছেলেকে তিন বছর লিবিয়ায় আটকে রেখে অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই এবং আমার কাছ থেকে নেওয়া সাড়ে ২০ লাখ টাকা ফেরত চাই।

জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, মানব পাচার আইনে মামলা দায়ের পর দুই নম্বর আসামি জেবু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার মুলহোতা লিবিয়ায় রয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। সবাইকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

এম সি


This is the free demo result. For a full version of this website, please go to Website Downloader